• Wednesday, June 19, 2019

চাঁপাইনবাবগঞ্জে আম নামার শুরুতেই ২৫ মণ আম ধ্বংস করেছে ভ্রাম্যমান আদালত

  • May 25, 2019

চলতি মৌসুমে আম নামার শুরুতেই চাঁপাইনবাবগঞ্জে ২৫ মণ আম ধ্বংস করেছে ভ্রাম্যমান আদালত। শনিবার বিকেলে আমের রাজধানী চাঁপাইনবাবগঞ্জের খিরসাপাত আমে (জিআই পণ্য হিসেবে স্বীকৃত) কেমিকেল মেশানোর অভিযোগে ২৫ মণ আম ধ্বংস করা হয়। একই সাথে আমের মালিক ও শ্রমিককে বিভিন্ন মেয়াদে কারাদণ্ড প্রদান করা হয়।

দণ্ডপ্রাপ্তরা হলেন-মোবারকপুর ইউনিয়নের হাফিজুর রহমানের ছেলে মালিক সেবারুল ইসলাম, কান্তিনগর গ্রামের মকবুল হোসেনের ছেলে কবির হোসেন ও টিকরি বটতলা হাটের আবুল হোসেনের ছেলে মজিবর রহমান।

শিবগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা চৌধুরী রওশন ইসলাম জানান,  শনিবার (২ মে) বিকেলে এসআই আরিফের নেতৃত্বে একদল পুলিশ উপজেলার মোবারকপুর এলাকার সেবারুল ইসলামের আম আড়তে অভিযান চালিয়ে কেমিকেল মেশানো অবস্থায় হাতেনাতে তাকে আটক করে।

পরে ঘটনাস্থলে ভ্রাম্যমাণ আদালত বসিয়ে আমের মালিক সেবারুল ইসলামকে ছয় মাস, তার সহযোগী শ্রমিক কবির ও মজিবুরকে একমাস করে বিনাশ্রম কারাদণ্ড দিয়ে কারাগারে পাঠানো হয় এবং জব্দকৃত আমগুলো কেরোসিন মিশিয়ে কানসাট ব্রীজের নিচে পানিতে ফেলে দেয়া হয়।

এ সময় শিবগঞ্জ থানার ওসি শিকাদার মো.মশিউর রহমান, ওসি তদন্ত সেলিম রেজা উপস্থিত ছিলেন।

এ বিষয়ে ক্ষোভ প্রকাশ করে চাঁপাইনবাবগঞ্জের কানসাটের আম ব্যবসায়ীরা বলেন, এবছর পরিপক্ক আম বাজারজাত করার ব্যাপারে শুরু থেকেই আম ব্যবসায়ীরা সচেতন আছেন। এমনিতেই কেমিক্যাল মেশানোর অপবাদে চাঁপাইনবাবগঞ্জের আম শিল্প ক্ষতিগ্রস্থ হচ্ছে। এসমস্ত গুটি কয়েক অসাধু আম ব্যবসায়ী চাঁপাইনবাবগঞ্জের আমের বাজারকে ধ্বংস করতে কেমিক্যাল মেশানোর মত জঘন্য কাজ করছে। আমে কেমিক্যাল মেশানোর সঙ্গে জড়িত কেমিক্যাল বাজারজাতকারীদের দৃষ্টান্তমূলক শাস্তি দাবি করছি।

আমের এই বিষয়গুলোতে আরও সতর্কতার সাথে প্রশাসন ব্যবস্থাগ্রহণ করবে বলে আশাবাদ ব্যক্ত করেন ব্যবসায়ীরা। যাতে করে কেমিলক্যাল মেশানো নয়, এমন আম ক্ষতিগ্রস্থ না হয় কিংবা কোন সাধারণ নিরীহ ব্যবসায়ী হয়রানীর শিকার না হোন।