• Monday, July 15, 2024

একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক, বরেণ্য আইনজীবী গোলাম আরিফ টিপু আর নেই

  • Mar 18, 2024

Share With

একুশে পদকপ্রাপ্ত ভাষা সৈনিক ও মুক্তিযুদ্ধের অন্যতম সংগঠক, দেশ বরেণ্য আইনজীবী, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইবুন্যালের চিফ প্রসিকিউটর গোলাম আরিফ টিপু আর নেই (ইন্নালিল্লাহি … রাজিউন)। শুক্রবার সকালে রাজধানীর ল্যাবএইড হাসপাতালে তিনি মৃত্যুবরণ করেছেন। ভাষাসৈনিক বিশিষ্ট আইনজীবী গোলাম আরিফ টিপুর মৃত্যুতে শোক জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

শুক্রবার দুপুরে নিউ বেইলি রোডে মিনিস্টার্স অ্যাপার্টমেন্টের নিজ বাসায় গোলাম আরিফ টিপুর প্রথম জানাজা সম্পন্ন হয়। তার কর্মস্থল আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালে বিকালে দ্বিতীয় জানাজায় অংশ নেন প্রধান বিচারপতি ওবায়দুল হাসান, আন্তর্জাতিক অপরাধ ট্রাইব্যুনালের চেয়ারম্যান বিচারপতি মো. আবু আহমেদ জমাদার, ভারপ্রাপ্ত চিফ প্রসিকিউটর সৈয়দ হায়দার আলী, প্রসিকিউটর মো. মুখলেসুর রহমান বাদল, রেজিস্ট্রার ব্যারিস্টার মোহাম্মদ মেজবাহ উদ্দিন আহমেদ ও তদন্ত সংস্থার প্রধান এম সানাউল হক। এরপর সর্বস্তরের মানুষের শ্রদ্ধা নিবেদনের জন্য লাশ নেওয়া হয়ে কেন্দ্রীয় শহিদ মিনারে। সেখানে শ্রদ্ধা জানানোর পর মিরপুর বুদ্ধিজীবী কবরস্থানে তাকে দাফন করা হয়।

৯৩ বছর বয়সি জ্যেষ্ঠ এই আইনজীবী দীর্ঘদিন ধরে বার্ধক্যজনিত নানা অসুস্থতায় ভুগছিলেন। গোলাম আরিফ টিপু ১৯৩১ সালের ২৮ আগস্ট চাঁপাইনবাবগঞ্জের (তৎকালীন মালদহ জেলা, ব্রিটিশ ভারত) শিবগঞ্জ উপজেলার কমলাকান্তপুর গ্রামে জন্মগ্রহণ করেন। তার বাবা আফতাব উদ্দিন আহমদ ছিলেন জেলা রেজিস্ট্রার। ৯ ভাই-বোনের মধ্যে টিপু দ্বিতীয়। তিনি কালিয়াচর বিদ্যালয় থেকে ১৯৪৮ সালে মাধ্যমিক ও রাজশাহী কলেজ থেকে ১৯৫০ সালে উচ্চ মাধ্যমিক পাশ করেন। একই কলেজ থেকে আইন বিষয়ে স্নাতক করার পর ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় থেকে স্নাতকোত্তর করেন। ১৯৫৪ থেকে ১৯৫৬ সাল পর্যন্ত তিনি বাংলাদেশ ছাত্র ইউনিয়নের সাধারণ সম্পাদক ছিলেন।

মুক্তিযোদ্ধা ও ভাষাসৈনিক এ আইনজীবী রাষ্ট্রভাষা সংগ্রাম পরিষদের রাজশাহী অঞ্চলের যুগ্ম আহ্বায়ক হিসাবে দায়িত্ব পালন করেন। ভাষা আন্দোলনে বিশেষ অবদানের জন্য তাকে ২০১৯ সালে একুশে পদক দেওয়া হয়। গোলাম আরিফ টিপু ১৯৫৮ সালে আইনজীবী হিসাবে তার কর্মজীবন শুরু করেন। তিনি একাধিকবার রাজশাহী আইনজীবী সমিতির সভাপতি, রাজশাহী বিশ্ববিদ্যালয়ের সিনেট ও সিন্ডিকেট সদস্য এবং বাংলাদেশ বার কাউন্সিলের সদস্য নির্বাচিত হয়েছেন।