• Friday, June 21, 2024

চাঁপাইনবাবগঞ্জে ভ্রাম্যমান ও ফুটপাতের দোকানে ক্রেতাতের উপচে পড়া ভিড়

  • Nov 23, 2018

Spread the love

-চাঁপাইনবাবগঞ্জে শীত বাড়ার সাথে সাথে গরম কাপড় বিক্রি বেড়েছে-

নিজস্ব প্রতিনিধি : চাঁপাইনবাবগঞ্জে শীত পড়তে শুরু করেছে বেশ কিছুদিন থেকে। দিনে হালকা গরম আর রাতে ভাল ঠান্ডা পড়ছে। শুধু ঠান্ডা নয় কুয়াসাও ভোররাত থেকে সকাল পর্যন্ত পড়ছে। এরি মধ্যে বাড়ির গৃহিনীরা শীত নিবারনের জন্য লেপ-কম্বলও ব্যবহার শুরু করেছেন। গরম কাপড় মাফলার, শুয়েটার, কম্বল, জ্যাকেট, পরে মানুষকে চলাচল করতে দেখা যাচ্ছে। মোড়ে মোড়ে খেঁজুর রস আর ভাপা পিঠা বিক্রি শুরু হয়েছে মানেই শীতকালও শুরু হয়ে গেছে।

শীত শুরু হবার বেশ কিছুদিন আগে থেকেই ভ্রাম্যমান দোকান, ফুটপাতসহ বিপনি বিতানগুলোতে গরম কাপড় বিক্রিও শুরু হয়েছে। চাঁপাইনবাবগঞ্জের রেল স্টেশন, কলা পট্টি এলাকা, ঢাকা বাসস্ট্যান্ড, হুজরাপুর, নিউমার্কেট এলাকা, কোর্ট চত্বর, কোর্ট বাগান, শহীদ সাটু মার্কেট এলাকা, নিমতলা মোড়, বাঁতেন খার মোড়, শান্তিমোড়, পিটিআই এলাকা, বটতলা হাট এলাকা, বারঘরিয়া দৃষ্টি নন্দন পার্কসহ বিভিন্ন এলাকাতে শীতের গরম কাপড় বেচাবিক্রি শুরু হয়েছে। বিকাল থেকে রাত দশটা পর্যন্ত ভ্রাম্যমান এসব গরম কাপড়ের দোকানে ভিড়ও লক্ষ্য করা গেছে।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ আলি নগর রেল গেট এলাকার গরম কাপড় ব্যবসায়ী জিয়ারুলের সাথে শুক্রবার সন্ধার পরে বারঘরিয়া দৃষ্টি নন্দন পার্কে দেখা হলে বলেন, শীত শুরুর আগে থেকেই শীতের পোষাক ফুলহাতা টি শার্ট, উলের সুয়েটার, জ্যাকেট, কম্বল বিক্রি শুরু করেছি। দাম ক্রেতাদের নাগালের মধ্যেই রয়েছে। বর্তমানে ৪০ টাকা থেকে শুরু করে ১০০ টাকা পর্যন্ত দরে বিক্রি হচ্ছে এসব কাপড়। আরেক ব্যবসায়ী উদয়ন মোড় কলনিপাড়ার সালামত জানান, রাজশাহী ও নাটোর থেকে গরম পোষাক কিনে এনে বিক্রি করছি। বেচাবিক্রি খুবযে বেশি হচ্ছে তা না। আরো কিছুদিন পর বেচাবিক্রি দ্বিগুন বাড়বে। এখন যা বিক্রি করছি তাতে আমরা সন্তুষ্ট না।

এ ছাড়াও গরম কাপড় বিক্রেতা টিটন সাহা, বিদ্যুত সাহা, জহরুল, তরিকুল, আবুল কালাম, মনিরুল জানান, মধ্যবিত্ত ও নিন্মবিত্ত পরিবারের মানুষ কিছুটা কমদামে আমাদের কাছে গরম পোষাক কিনতে পারে এ জন্য ক্রেতাদের ভিড় বেশি লক্ষ করা যায়। তারা আরো জানান, শীত বাড়ার সাথে সাথে গরম কাপড়ের দোকানগুলোতেও ক্রেতাদের ভিড় বাড়বে।