• Wednesday, May 29, 2024

জোয়ার উঠেছে, ৩০ তারিখ নৌকার জয় হবে-আব্দুল ওদুদ এমপি

  • Dec 27, 2018

Spread the love

‘সারাদেশে নৌকার জোয়ার উঠেছে, ৩০ তারিখ নৌকার জয় হবে। যারা বলছে, জোর করে ভোট নেয়া হবে তাদেরকে চ্যালেঞ্জ করছি। উন্মুক্ত ভোটের ব্যবস্থা করে দিবো। আপনাদের চেয়ে দ্বিগুণ ভোটে বিজয়ী হবো’

একাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে চাঁপাইনবাবগঞ্জ-৩ সদর আসনের আওয়ামীলীগের প্রার্থী ও জেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আব্দুল ওদুদ এমপি বৃহস্পতিবার বিকেলে চাঁপাইনবাবগঞ্জ পৌরসভা পার্কে নৌকা প্রতীকের শেষ নির্বাচনী জনসভায় এসব কথা বলেন।

আব্দুল ওদুদ বলেন, আমি কি করেছি, না করেছি আপনারা সবই জানেন। আমি ভোটারদের মান সম্মান দিয়েছি। মর্যাদা দিয়েছি। কারো সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করিনি। ভবিষ্যতেও খারাপ ব্যবহার করবো না। ২০০৮ সালের নির্বাচনে আপনাদের কথা দিয়েছিলাম। নির্বাচিত হলে উন্নয়ন করবো। উন্নয়ন করেছি। আমাদের পরিকল্পনা আছে। আমরা নবাবগঞ্জকে বদলে দিবো’।

তিনি বিএনপি জামায়াতের নেতাকর্মীদের উদ্দেশ্যে বলেন, ‘আপ ‘আপনারা এখনও ভুলপথে আছেন, এখনও সময় আছে। নৌকার সঙ্গে আসুন। আমি কথা দিচ্ছি, বিপদে আপদে আপনাদের সঙ্গে থাকবো। সমস্যার সমাধান করবো’।

তিনি জামায়াত নেতা নূরুল ইসলাম বুলবুলের প্রতীক আপেল প্রসঙ্গে বলেন, এই আপেল বিদেশ থেকে আসে। আপেলে ফরমালিন থাকে। ফরমালিনযুক্ত আপেল খেলে মানুষের অসুখ হয়, ক্যান্সারে আক্রান্ত হয়। এই আপেল যদি চাঁপাইনবাবগঞ্জবাসী খায় তাহলে উন্নয়ন ব্যাহত হবে। উন্নয়ন হবে না’।

হারুন পাপিয়া প্রসঙ্গে বলেন,  আমার ভাই ভাবি বলছেন, আর দু’দিন পরেই নাকি তারা ক্ষমতায় চলে আসবেন। আর ক্ষমতায় এসে নাকি তারা আপনাদের (নেতাকর্মীদের) ঠ্যাং (পা) ভেঙ্গে দিবেন। সবাইকে দেখে নিবেন’। তিনি বলেন, ‘যারা ভয়ভীতি দেখাতে চায়, সবাইকে দেখে নিতে চায়। তাদেরকে জনগন কখনো ভোট দিতে পারে না’।
তিনি তার উন্নয়ন পরিকল্পনার মধ্যে আগামী দু’ মাসের মধ্যে চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আন্তনগর ট্রেন চালু করা, ১ বছরের মধ্যে মেডিক্যাল কলেজ নির্মাণ করা ও আধুনিক শ্মশান নির্মাণ করার কথা উল্লেখ করেন।

চাঁপাইনবাবগঞ্জ সদর উপজেলা আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ও পৌর আওয়ামী লীগের সভাপতি অধ্যাপক শরিফুল আলম শরিফের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠিত সভায় অরো বক্তব্য দেন জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুক্তিযোদ্ধা মইনুদ্দীন মন্ডল ও সহ-সভাপতি সদর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান মুক্তিযোদ্ধা আলহাজ্ব রুহুল আমিন, আওয়ামী লীগের বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি উপ-কমিটির সদস্য সাবেক ছাত্রনেতা ইঞ্জিনিয়ার মাহতাব উদ্দিন, আওয়ামী লীগ নেতা মনিম উদ দৌলা চৌধুরী, শ্রী বাবুল কুমার ঘোষ, জেলা জাসদের সাধারণ সম্পাদক মনিরুজ্জামান মনির, সদ্য আওয়ামী লীগে যোগদান করা ব্যবসায়ী রফিকুল ইসলাম, জেলা জাতীয় পার্টির সাধারণ সম্পাদক শাহজাহান আলী, সদর উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান মাওলানা সোহরাব আলী, শিল্পপতি এরফান আলী, পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক অ্যাড. মিজানুর রহমান প্রমূখ নেতৃবৃন্দ।

জনসভায় জেলা আওয়ামী লীগসহ বিভিন্ন অংগ ও সহযোগী সংগঠনের নেতৃবৃন্দ্ব উপস্থিত ছিলেন।