• Tuesday, March 5, 2024

সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষর দৃষ্টি আকর্ষণ : চাঁপাইনবাবগঞ্জ-আমনুরা সড়কের বেহাল দশা

  • Sep 19, 2018

ডি এম কপোত নবী : চাঁপাইনবাবগঞ্জ থেকে আমনুরা পর্যন্ত রাস্তা চলাচলের জন্য একেবারেই অনুপযোগী হয়ে পড়েছে। বিশেষ করে নয়াগোলা থেকে জামতলা এলাকার অবস্থা খুবই খারাপ। গত মঙ্গলবার বিকেলে সরেজমিনে গেলে দেখা যায়, কিছু দূর পর পর রাস্তার মধ্যখানে ছোটবড় গর্তের সৃষ্টি হয়েছে। বৃষ্টি হলে সে সব গর্তে পানি জমে যায়।

এ-ছাড়াও পিচ কর্পেটিং উঠে গিয়ে বেরিয়ে এসেছে ইট। বরেন্দ্র অঞ্চলের চলাচলের একমাত্র এ রাস্তাটি নষ্ট হয়ে যাবার কারণে প্রায় শতাধিক গ্রামের মানুষ বেকায়দায় পড়েছেন। অসুস্থ রোগী কিংবা জরুরী কাজে শহরে আসতে হলে এখন সময় লাগছে দ্বিগুণ। প্রতিনিয়ত গর্তে যানবাহনের চাকা পড়ে বিকল হয়ে থাকছে রাস্তা জুড়ে। এতে করে সৃষ্টি হচ্ছে দীর্ঘ যানজটের।

জামতলা এলাকার আদি বাসিন্দা শিক্ষক মোসলেম উদ্দীন, ব্যবসায়ী সাজ্জাদ, অটো রাইস মিলের মেকানিক বাবু, ফেরিওয়ালা মাতিনসহ বিভিন্ন জনের সাথে কথা বললে তারা এ প্রতিবেদককে জানান, চলাচলের একমাত্র প্রধান এ সড়কটি বহুদিন ধরে একটু একটু নষ্ট হয়ে গেছে। বৃষ্টি হলে রাস্তায় সৃষ্টি গর্তে পানি জমে যায়। সে জমে থাকা পানির উপর দিয়ে ভারি যানবাহন গেলে রাস্তা আরও ভেঙ্গে যায়।

এলাকার কলেজ ছাত্রী ইয়াসমিন জানান, কলেজের পরীক্ষা কিংবা শহরে যেতে হলে অটো রিকশায় আমার মত অনেক শিক্ষার্থীকে যেতে হয়। রাস্তা ভাঙ্গাচুড়া ও উঁচুনিচু হয়ে পড়ার কারণে অটো রিকশা একদিকে কাত হয়ে যায়, একটু চালক অসচেতন হলে মনে হয় অটো রিকশা উল্টে যাবে। প্রায় প্রতিদিনি আমরা একটি বা দুটি অটো রিকশা বিকল কিংবা যাত্রী নিয়ে উল্টে যায়।

জামতলা আতাহার এলাকায় রয়েছে বড় বড় সব শিল্প প্রতিষ্ঠান। সে সব প্রতিষ্ঠানে হরহামেশা মাল বোঝাই ট্রাক যাতায়াত করে থাকে। শিল্প প্রতিষ্ঠানের সদস্য, এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তি বর্গসহ সকলের এখন একটাই চাওয়া, বহু মানুষের চলাচলের প্রধান এ সড়কটি যেন যতদ্রুত সম্ভব মজবুত করে তৈরি করা হয়।

এটাও লক্ষ রাখতে হবে বৃষ্টি হলে যেন জমে থাকা পানি পাশ দিয়ে যেতে পারে। সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষ এরি মাঝে টুকরো ইট ও বালু দিয়ে আপাতত মেরামত করেছে ভাঙ্গা স্থানগুলো। কিন্তু দু একদিন বৃষ্টি হলেই তা টিকবে কিনা সে বিষয়ে সংশয় রয়েছে এলাকাবাসীর। কাজেই পুরো রাস্তা নতুন করে নির্মাণ করার আহবান জানিয়েছেন এলাকার ভূক্তভোগীরা।

১৯ সেপ্টেম্বর ২০১৮
রাত : ৮ : ৪৫