• Thursday, October 22, 2020

প্রথিতযশা নাট্যকার অধ্যাপক মমতাজ উদদীন আহমদের ১ম মৃত্যুবার্ষিকী

  • Jun 02, 2020

মাহবুবুল ইসলাম ইমন :

বাংলাদেশের প্রথিতযশা নাট্যকার, কথাশিল্পী, ভাষাসৈনিক, চাঁপাইনবাবগঞ্জের কৃতি সন্তান ‘অধ্যাপক মমতাজ উদদীন আহমদের আজ প্রথম মৃত্যুবার্ষিকী।

প্রফেসর মমতাজ উদদীন আহমদ স্বাধীনতা উত্তর বাংলাদেশের নাট্য আন্দোলনের অন্যতম পথিকৃত ছিলেন।  ১৯৩৫ সনে ১৮ জানুয়ারী তৎকালীন মালদহ জেলা (চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও ভারতের কিছু অংশ) অর্থাৎ চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার উত্তর কোনে হাবিবপুর থানার আইহো গ্রামে তিনি জন্মগ্রহণ করেন। তাঁর পিতার নাম কলিমুদ্দিন আহমদ। ১৯৪৭ এর দেশ-বিভাগের পর চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার কানারহাট গ্রামে তাঁরা স্থায়ীভাবে বসবাস শুরু করেন। প্রফেসর মমতাজউদদীন মালদহ জেলা স্কুল, ভোলাহাট রামেশ্বর পাইলট ইনস্টিটিউশন এবং রাজশাহী সরকারি কলেজে লেখাপড়া করেন। 

তৎকালীন রাজশাহীর তুখোর ছাত্রনেতা ও ভাষাসৈনিক গোলাম আরিফ টিপুর (বাংলাদেশের প্রথিতযশা আইনজীবী) সান্নিধ্যে ছাত্র রাজনীতিতে ১৯৫২ সালের মহান ভাষা আন্দোলনে বলিষ্ঠ ভূমিকা পালন করেন। ১৯৫২ এর ২১ ফেব্রুয়ারীর দিবাগত রাতেই রাজশাহী সরকারি কলেজের মুসলিম হোস্টেলের গেটে ইট ও কাদা দিয়ে একটি শহীদ মিনার নির্মাণ করা হয়েছিল। অনেকেই এটিকে দেশের প্রথম শহীদ মিনার বলে দাবি করে থাকেন। এ শহীদ মিনার নির্মাণের উদ্যোগের সাথে চাঁপাইনবাবগঞ্জের এ্যাড.গোলাম আরিফ টিপু, প্রফেসর মমতাজ উদ্দিন, ডা.মেসবাহুল হক বাচ্চু, প্রকৌশলী মজিবুর রহমান প্রমুখ ব্যক্তিবর্গ সক্রিয়ভাবে জড়িত ছিলেন। পরদিন ২২ ফেব্রুয়ারী পূর্বাহ্ণেই অবশ্য পুলিশ এ শহীদ মিনারটি ভেঙে ফেলে। মাতৃভাষা আন্দোলন, মুক্তিসংগ্রামে সংযুক্ত হওয়া এবং রাজনীতি করার কারণে তিনি ১৯৫৪, ৫৫, ৫৬ এবং ১৯৫৮ সালে গ্রেফতার হন।

মমতাজ উদদীন আহমদ জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালযের নাট্যকলা ও সংগীত বিভাগের খ-কালীন অধ্যাপক ছিলেন এবং ঢাকা বিশ্ববিদ্যালযের নাট্যকলা ও সংগীতে বিভাগের খন্ডকালীন অধ্যাপক হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি জাতীয় শিক্ষাক্রম ও পাঠ্যসূচি প্রণয়ন কমিটিতে একজন উচ্চতর বিশেষজ্ঞ এবং বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমী, ঢাকার গবেষণা ও প্রকাশনা বিভাগের পরিচালক ছিলেন। 

শিল্প ও সাহিত্যে অনন্য অবদানের জন্য তিনি জাতীয় ও আর্ন্তজাতিক পর্যায়ে বহু পুরস্কার-সম্মাননা অর্জন করেন। তার মধ্যে বাংলা একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার (১৯৭৬), একুশে পদক (১৯৯৭), নাট্যকলায় অবদানের জন্য ২০০৮ সালে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি কর্তৃক বিশেষ সম্মাননা, বাংলাদেশ শিশু একাডেমি সাহিত্য পুরস্কার ও আলাউল সাহিত্য পুরস্কার অন্যতম।

২০১৯ সালের ২ জুন তিনি ঢাকায় মৃত্যুবরণ করেন। তাঁর ইচ্ছানুযায়ী নিজ জেলা চাঁপাইনবাবগঞ্জের ভোলাহাট উপজেলার নিজ গ্রামে তাঁকে দাফন করা করা হয়।

# দেশবরেণ্য নাট্যকার, শিক্ষাবিদ, ভাষাসংগ্রামী, প্রগতিশীল ব্যক্তিত্ব ‘প্রফেসর মমতাজ উদদীন আহমদ’ স্যারের প্রথম মৃত্যুবার্ষিকীতে ‘আলোকিত চাঁপাইনবাবগঞ্জের’ পক্ষ থেকে জানাই বিনম্র শ্রদ্ধা…